1. shahalom.socio@gmail.com : admin :
  2. mdjoy.jnu@gmail.com : Admin. :
সোমবার, ৩০ জানুয়ারী ২০২৩, ০৪:৩১ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
লক্ষ্য এবার ‘স্মার্ট বাংলাদেশ’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ তৈরিতে শেখ হাসিনার বিকল্প শেখ হাসিনাই বললেন অ্যাড.আফজাল হোসেন পটুয়াখালীতে চোরাই গরুসহ চোর চক্রের ৩ সদস্য গ্রেফতার চলনবিল শিক্ষা উৎসবের দ্বিতীয় দিনে গণিত ক্যাম্প উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত জুনায়েদ আহমেদ পলক পটুয়াখালী তে পুলিশ সুপার কতৃক শীতবস্ত্র বিতরণ কাঁচা-পাকা চুল, এক মুখ দাড়ি নিয়ে কোথায় চললেন মহেন্দ্র সিংহ ধোনি? পটুয়াখালীতে অপরিকল্পিত ভাবে ফেলা বর্জ্য অপসারন এবং পরিবেশ দূষণ থেকে মুক্তির দাবিতে তৃপক্ষীয় সংবাদ সম্মেলন। বাকেরগঞ্জে মাদক বিরোধী অভিযানে ২৫ পিস ইয়াবাসহ গ্রেফতার ১ মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিস্তম্ভ ভাংচুরকারীর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন কেন্দ্রীয় সাংবাদিক নেতাদের সাথে পটুয়াখালী প্রেসক্লাবের সাংবাদিকদের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত।

পটুয়াখালীতে জমিজমা দ্বন্দ্বে মা মেয়েকে কুপিয়ে জখম | আপডেট বাংলাদেশ

  • আপডেট করা হয়েছে শুক্রবার, ১৩ জানুয়ারী, ২০২৩
  • ৫৪ বার পড়া হয়েছে

পটুয়াখালীতে জমিজমা দ্বন্দ্বের জেরে মা মেয়ে ও ছেলেকে কুপিয়ে জখম করেছে প্রতিপক্ষের লোকজন। ১২ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সদর উপজেলার লোহালিয়া ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ডের কুড়িপাইকা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ফরিদা বেগম (৩৫) তার মেয়ে বৃষ্টি আক্তার (১৮) এবং ছেলে রবিউল হাওলাদার (১৩) আহত হন। বর্তমানে আহত ৩ জনই পটুয়াখালী সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এঘটনায় গতকাল রাতেই জসিম ও তবারক হাং নামে দুজনকে জিগ্যেসাবাদের জন্য থানায় আনা হয়।

হাসপাতালে আহত ফরিদা বেগমের স্বামী মোঃ মনিরুল হাওলাদার বলেন, আমার বাড়ির পাশের রাস্তা ও বাড়ির জমি নিয়ে জসিম ও তবারকের সাথে দ্বন্দ্ব ছিলো। গতকাল এ নিয়ে সালিসি হয় যেখানে স্থানীয় চেয়ারম্যান হুমায়ুন কবির ও ৭ নং ওয়ার্ডের ইউপি মেম্বার মামুন খান উপস্থিত ছিলেন। সালিসি শেষ করে তারা পরবর্তী যেকোন একদিন জমির সমাধান হবে বলে চলে যান। কিন্তুুু সন্ধ্যার পর শুনি জসিম ও তবারক তাদের ৮/১০ জন লোক নিয়ে আমার বউ, ছেলে ও মেয়ের উপর হামলা চালায়। পরে সদর থানা পুলিশকে জানালে পুলিশ গিয়ে আমার বউ, ছেলে এবং মেয়েকে উদ্ধার করে।

তিনি আরো বলেন, এ ঘটনায় জসিম খা, কালাম খা, সেকান্দর তাং, তবারক হাং, মতি হাং, আনোয়ার হাং, মামুন হাং, অযুফা বেগম নামে ১০/১২ জনের নামে থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

আহত ফরিদা বেগম জানান, সালিসির শেষে সন্ধ্যার পর জসিমদের সাথে জমিজমা নিয়ে কথা-কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে জসিম রান্দা দিয়ে আমার মাথার উপর কোপ দেয় এবং লাঠি দিয়ে এলোপাতাড়ি ভাবে পিটাতে থাকে এবং আমার বাসার দরজা ভেঙ্গে আলমারিতে থাকা ৯০ হাজার টাকা নিয়ে যায়।

হাসপাতালে ভর্তি হওয়া আহত বৃষ্টি আক্তার জানান, জসিম, তবারকসহ ১০/১২ জন লোক আমাদের রান্দা ও লাঠি দিয়ে পেটাতে থাকে। আমার পিঠে ও শরীরের বিভিন্ন অংশে এখনো লাঠির আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। আমরা এর সঠিক বিচার চাই।

পটুয়াখালী সদর থানার এসআই বিপুল হাংলাদার বলেন, এ ঘটনায় গতকাল রাতেই জসিম ও তবারক হাওলাদার নামে দু জনকে জিগ্যেসাবাদের জন্য আনা হয়। মামলা হলে গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে পাঠানো হবে।

অপূর্ব সরকার
পটুয়াখালী জেলা প্রতিনিধি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

কমেন্ট করুন

আরো সংবাদ পড়ুন